কিউইফ্রুটের ৯টি সহজ এবং দারুণ রেসিপি

অস্পষ্ট বাদামি খোলস এবং চকচকে ও উজ্জ্বল সবুজ মাংস বিশিষ্ট কিউই যথেষ্ট রসালো ও মিষ্টি জাতীয় একটি ফল। ভিনদেশী ফল হলেও কিউই তার দৃষ্টিনন্দনীয় সৌন্দর্য্য এবং দারুণ স্বাদ এর জন্য অন্যসব ফলের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়।
কিউই সত্যিই একটি চমকপ্রদ ফল যা ফলের বাটি, সালাদ, জুস কিংবা স্মুদি সহ বিভিন্ন রূপে খাবার টেবিলকে করে তোলে আরও আকর্ষণীয়।

প্রতিদিনকার খাদ্যাভ্যাসে কিউই ফল ম্যাজিকের মতো আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাবে। আপনি যদি আপনার ডায়েটে কিউই ফল যোগ করতে চান এবং সাথে রেসিপিটাও ভাবছেন একটু দারুণ; তাহলে আপনি সঠিক জায়গাতেই আছেন। এখানে কিউই ফলের কয়েকটি সাধারণ রেসিপি দেওয়া হলো –

 

** কিউই ফলের জুস:

কিউই ফল খোসা ছাড়িয়ে ব্লেন্ড করে নিন। তারপর একটি গ্লাস বরফ কুচি দিয়ে পূর্ণ করে তার ভিতর কিউই ফলের জুস মিশিয়ে নিন।
গ্লাসের উপর একটি কিউই স্লাইস দিয়ে দিন। তৈরী হয়ে গেলো আকর্ষণীয় কিউই ফলের জুস।

 

** কিউই এবং তরমুজের স্মুদি:

কিউই ফল, তরমুজ, মধু, আঙুর, বরই, পেঁপে, দুধ এবং ওটস দিয়ে একসাথে ব্লেন্ড করে নিন। ঝটপট তৈরী হয়ে গেলো একটি মজাদার স্মুদি।
গ্লাসের উপরে একটি কিউই স্লাইস দিয়ে পরিবেশন করুন।
পুষ্টিকর এবং স্বাদযুক্ত কিউই স্মুদি ই হবে আপনার সারাদিনের জ্বালানী।

 

 

** কিউই – আমের ফাজ:

গ্রীষ্মের মৌসুমে নিজেকে ঠাণ্ডা করতে এই প্যাকটির জুড়ি নেই। ফলের রাজা- আমের সাথে দারুণ স্বাদযুক্ত কিউই ব্লেন্ড করুন। এবার একটি গ্লাস নিন এবং এটি বরফের কিউব দিয়ে পূর্ণ করুন। এর ভিতর কিউই এবং আমের রস মিশ্রিত করুন। তৈরী হয়ে গেলো দারুণ কিউই- আমের ফাজ।

 

** রেইনবো স্প্রিটজার:

একটি লম্বা গ্লাসে কিউই, ব্লুবেরি, আনারস এবং স্ট্রবেরি নিন। তার ভিতর ঠান্ডা লেবুর রস, আনারসের রস এবং কিছু আদা কুচি যোগ করুন। আপনার রেইনবো স্প্রিটজার তৈরী।
এটি আপনার খাবার টেবিলের সৌন্দর্য্য কয়েকগুণ পর্যন্ত বাড়িয়ে দিবে।

 

** কিউই ফলের কেক:

আপেল, আনারস, কমলা এবং অন্যান্য ফলের কেকগুলি কার না প্রিয়! কিন্তু আপনি কিউই ফলের কেক এর নাম শুনেছেন? ব্লেন্ডেড ময়দা, বাদামি চিনি, ডিম এবং ভ্যানিলা এসেন্সের সাথে পাল্পি কিউই মিশিয়ে তৈরী করুন মনমুগ্ধকর কিউই কেক। এর উপর গ্ল্যাজড চেরি সাজিয়ে পরিবেশন করুন পারফেক্ট ফ্লাফি এবং মজাদার কিউইফ্রুট কেক।
এই কেকটি নিঃসন্দেহে বাচ্চাদের মনে জায়গা করে নিবে খুব সহজেই।

 

** কিউই – রুটির হালুয়া:

ঐতিহ্যবাহী হালুয়ায় একটি নতুন চমক কিউই-রুটির হালুয়া!
ঘন দুধ, ঘি, কিছুটা চিনি, এলাচ গুঁড়া, কাজুবাদাম, কাঠবাদাম এবং পেস্তা বাদাম একসাথে রান্না করে তার ভিতর কিউই ফল মিশ্রিত করুন। এবার রুটি টোস্ট করে এর ভিতর পুরা রান্নার মিশ্রণটি দিয়ে পরিবেশন করুন।

 

** কিউই ফলের সালাদ:

কিউই, আনারস, স্ট্রবেরি, আঙ্গুর, আম, কলা, নাশপাতি নিন এবং তার সাথে কিছুটা কমলা এবং আনারসের রস যোগ করুন। ব্যাস হয়ে গেলো ফলের সালাদ তৈরি। এটি আপনার খাবার টেবিল কে করে তুলবে বেশ আকর্ষণীয়।

 

** টাঙ্গি চিংড়ি সহ কিউই সালাদ:

রান্না করা চিংড়ির সাথে কমলা, কিউই, বাদাম এবং গুল্ম মিশ্রিত করুন। এবার দই, লেবুর রস, মধু এবং সরিষার সুস্বাদু মিশ্রণ চিংড়ি মিশ্রণের উপর ঢেলে দিতে হবে। এগুলি মাখন, ভেষজ এবং গোলমরিচ মিশ্রিত মাশরুম দিয়ে স্টাফ করা মাশরুম রোল দিয়ে পরিবেশন করুন।
এটি যথেষ্ট সহজ এবং নিঃসন্দেহে সুস্বাদু একটি ট্রিট।

 

** বাদাম – চিকেনে কিউই সালাদ:

রান্না করা মুরগীতে পেঁয়াজ এবং ডিম মিশিয়ে হাল্কা রান্না করুন। অন্য একটি বাটিতে কিউই, আঙ্গুর, চেরী, টক দই, পাপরিকা, গোলমরিচ গুঁড়া, লবণ মিশ্রিত করুন এবং মসৃণ হওয়া পর্যন্ত নাড়ুন। এবার মিশ্রণটি মুরগির মিশ্রণের উপর ঢেলে দিন এবং ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। পরিবেশনের ঠিক আগে বাদাম যুক্ত করুন এবং কিউই দিয়ে সাজিয়ে নিন।

এই মজাদার কিউই রেসিপিগুলির মাধ্যমে আপনার প্রতিদিনের ডায়েটে এই বিস্ময়কর ফলটি অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন খুব সহজেই। এগুলি বাড়িতে প্রস্তুত করুন এবং আমাদের জানান আপনার প্রিয় কিউই ফলের রেসিপি কোনটা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

My Rewards